মঙ্গলবার

২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নগরীর ১৯নং ওয়ার্ডে বীর মুক্তিযোদ্ধা, করোনার সম্মুখযোদ্ধা চিকিৎসক ও সাংবাদিকদের সংবর্ধনা

Paris
Update : শনিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার : মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে রাজশাহী মহানগরীর ছোটবনগ্রাম যুব সমাজের আয়োজনে বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং কোভিড-১৯ সম্মুখযোদ্ধা চিকিৎসকদ ও সাংবাদিকদের সংবর্ধনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় ছোটবনগ্রাম স্কুল মোড়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। অনুষ্ঠানে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং কোভিড-১৯ সম্মুখযোদ্ধা চিকিৎসক ও সাংবাদিক, তরুণ উদ্যোক্তাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখা কৃতি ব্যক্তিদের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে ১৭ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা, ৪ জন কোভিড-১৯ সম্মুখযোদ্ধা চিকিৎসক, তিনজন সাংবাদিক, ক্রীড়াক্ষেত্রে ১জন, শিক্ষাক্ষেত্রে ১জন, সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে ১জন, ১জন তরুণ উদ্যোক্তাকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। সংবর্ধনাপ্রাপ্ত তিনজন সাংবাদিক হলেন, দৈনিক আমাদের রাজশাহী পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক আফজাল হোসেন, রাজশাহী সংবাদ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক আহসান হাবীব অপু, সানশাইন পত্রিকার বাণিজ্যিক ব্যবস্থাপক নূরুল হক।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র লিটন বলেন, মহানগরীর ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে রাস্তা,ড্রেন সহ ব্যাপক উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। ইতোমধ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজশাহীর উন্নয়নে প্রায় তিন হাজার কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছেন। এই প্রকল্পের কাজ শুরু হলে প্রতিটি ওয়ার্ডে রাস্তা, ড্রেনসহ অবকাঠামো উন্নয়নে আমূল পরিবর্তন সাধিত হবে। নগরবাসী যা প্রত্যাশা করেননি, তাদের চেয়েও বেশি উন্নয়ন কাজ করা হবে।

মেয়র আরো বলেন, রাজশাহীতে দীর্ঘদিনেও শিল্পায়ন না হওয়ায় কর্মসংস্থানের সুযোগও কম। বেকার তরুণ-তরুণীদের জন্য কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টিতে প্রচেষ্টা অব্যাহত হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ইতোমধ্যে তিনটি শিল্পাঞ্চল অনুমোদন দিয়েছেন। বিসিক শিল্পনগরী-২, চামড়া শিল্প পার্ক ও বিশেষ অর্থনৈতিক জোন, এই তিনটি শিল্পাঞ্চল প্রতিষ্ঠার কাজ আগামী ৫/৭ বছরে শেষ হলে সেখানে লক্ষাধিক ছেলে-মেয়ের চাকরি সুযোগ পাবে।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন রাসিকের ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ তৌহিদুল হক সুমন। সভাপতির বক্তব্যে কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন বলেন, বিগত ২০ বছরেও যে উন্নয়ন হয়নি, আমি মাননীয় মেয়র মহোদয়ের নির্দেশে ও সহায়তায় গত দুই বছরেই ১৯ নং ওয়ার্ডে তার চেয়ে বেশি উন্নয়ন কাজ করেছি। ৩০টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১৯নং ওয়ার্ডের উন্নয়নে মেয়র মহোদয় সর্বোচ্চ বাজেট বরাদ্দ দিয়েছেন। এই ওয়ার্ডের অলিতে-গলিতে রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণ করা হয়েছে।

আগামীতে এই ওয়ার্ডের আরো ব্যাপক উন্নয়ন হবে। এই উন্নয়ন কাজ যাতে চলমান রাখতে পারি, সেজন্য মেয়র মহোদয় ও আমার জন্য ওয়ার্ডবাসী দোয়া করবেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংরক্ষিত জোন-৭ এর কাউন্সিলর মোসাঃ উম্মে সালমা বুলবুলি। সম্মানী অতিথি ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও স্থানীয় সানশাইন পত্রিকার প্রকাশক ও ব্যবস্থাপনা সম্পাদক মো. ইউনুস আলী এবং শাহ্ মখদুম থানার আওয়ামী লীগের সভাপতি সৈয়দ আক্তারুল আলম। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ১৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের (উত্তর) মোঃ হাসেন মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক মোঃ বাবর আলীসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।


আরোও অন্যান্য খবর
Paris