জাহাঙ্গীর আলম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ : সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে পরিবেশের ক্ষতি করে জ্বালানি হিসেবে কোনরকম কয়লা ছাড়াই সম্পূর্ণ আমগাছের খড়ি দিয়ে ইটভাটা চলছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে। উপজেলার কানসাট ইউনিয়নের কয়লাবাড়ী এলাকার আইরন-ব্রিকস ভাটায় জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে হাজার হাজার মণ আমগাছ। শনিবার দুপুরে ভাটায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শুধুমাত্র পোড়ানো হচ্ছে কাঠ, অন্যদিকে ভাটার চারদিকে মজুদ আছে আরো কয়েক হাজার মণ আমগাছের কাঠ ও খড়ি।

ভাটার শ্রমিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মাসখানেক আগে এবছর ভাটার সিজন শুরু হয়েছে। শুরু থেকেই কয়লার বদলে কাঠ পোড়ানো হচ্ছে এই ভাটায়। আশেপাশের সকল ভাটা ইট পোড়ানোর কাজে কয়লা ব্যবহার করলেও এই ভাটায় তা না করে সরকারি নির্দেশনা না মেনে শুধু গাছের খড়ি ব্যবহার করা হচ্ছে। কয়লা ব্যবহার না করে কাঠ ব্যবহার সম্পূর্ণ অবৈধ ও নিয়ম বর্হিভূত স্বীকার করে ভাটার শ্রমিকদের দফাদার জানান, ভাটার আশেপাশে পুকুরের পানি থাকায় কয়লা ব্যবহার না করে কাঠ দিয়ে ইট পোড়ানো হচ্ছে। কারন কয়লা দিয়ে ইট পোড়ানো যাচ্ছে না।

তাই বাধ্য হয়েই কাঠ-খড়ি ব্যবহার করতে হচ্ছে। ভাটার অন্যতম মালিকের ছেলে ও ম্যানেজার ইসমাইল বলেন, সবগুলো খড়ি শ্রমিকদের জন্য খাবার রান্না করার কাজে ব্যবহার করা হয়। এতোগুলো খড়ি কোথায় কিভাবে রান্নার কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে তা দেখতে চাইলে, তার কোন সদুত্তর দিতে পারেননি তিনি। ভাটায় কয়লা ব্যবহারের কথা বললেও তা দেখাতে পারেনি ইসমাইল। এসময় দেশের সমস্ত কিছু অবৈধভাবে চলছে ও ইউএনও টাকা খেয়ে কোন অবৈধ কাজের ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলে উল্লেখ করেন তিনি। মুঠোফোনে শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাকিব-আল-রাব্বী জানান, বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।