বুধবার

১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সর্বশেষ সংবাদ

এজেন্ট ব্যাংকিংয়ে আমানত ও ঋণ বিতরণে বড় প্রবৃদ্ধি

Paris
Update : বৃহস্পতিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২০

এফএনএস : মহামারি করোনার মধ্যেও এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের আওতায় আমানত ও ঋণ বিতরণে বড় প্রবৃদ্ধি হয়েছে। চলতি বছরের জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিন মাসে এজেন্ট ব্যাংকিংয়ে প্রায় ২৮ শতাংশ আমানত বেড়েছে। আর ঋণ বিতরণ বেড়েছে প্রায় ৫১ শতাংশ। এ দুটি সূচকে বার্ষিক প্রবৃদ্ধির হার আরো বেশি। বাংলাদেশ ব্যাংক সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়। সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, এজেন্ট ব্যাংকিং হলো শাখা না খুলে ব্যাংকের তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে সেবা দেয়ার একটি ব্যবস্থা। বর্তমানে এজেন্ট আউটলেটের সংখ্যা যেমন বাড়ছে, তেমনি গ্রাহক ও লেনদেনের পরিমাণও বাড়ছে। বর্তমানে ২৪টি বাণিজ্যিক ব্যাংক ১০ হাজার ১৬৩টি মাস্টার এজেন্টের আওতায় ১৪ হাজার ১৬টি আউটলেটের মাধ্যমে এ সেবা দি”েছ।

চলতি বছরের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের আওতায় ৮২ লাখ ২১ হাজার ৮৯৩ জন গ্রাহক হিসাব খুলেছে। ওসব হিসাবে জমাকৃত অর্থের ¯ি’তি দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৪০ কোটি টাকা। গত জুন পর্যন্ত গ্রাহক ছিল ৭৩ লাখ ৫৮ হাজার ১৯০ জন এবং আমানত স্থিতি ছিল ১০ হাজার ২২০ কোটি টাকা। অর্থাৎ তিন মাসে গ্রাহক বেড়েছে ৮ লাখ ৬৩ হাজার ৭০৩ জন বা ১১.৭৪ শতাংশ এবং আমানত স্থিতি বেড়েছে প্রায় ২ হাজার ৮২০ কোটি টাকা বা ২৭.৬০ শতাংশ। আর গত এক বছরের ব্যবধানে গ্রাহক ও আমানত বৃদ্ধির হার যথাক্রমে ১০৭ শতাংশ ও ১১১ শতাংশ। তাছাড়া গত তিন মাসের ব্যবধানে নতুন এজেন্ট বেড়েছে প্রায় ১৫.৯৬ শতাংশ আর আউটলেট বেড়েছে ১২.৫৯ শতাংশ।


সূত্র জানায়, এজেন্ট ব্যাংকিংয়ে শুধু হিসাব খোলা ও আমানত সংগ্রহের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়, ঋণ বিতরণের মাধ্যমে আয় উৎসারী কর্মকাণ্ডকে উৎসাহিত করে গ্রামীণ অর্থনীতিকে সচল রাখার ক্ষেত্রেও সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে। চলতি বছরের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের আওতায় ঋণ বিতরণের স্থিতি দাঁড়িয়েছে প্রায় এক হাজার ৮৭ কোটি টাকা। তার মধ্যে জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৩ তিন মাসেই বেড়েছে প্রায় ৩৬৬ কোটি টাকা বা ৫০.৮৫ শতাংশ। আর এক বছরের ব্যবধানে বেড়েছে ৭৮১ কোটি টাকা বা ২৫৫.৪৫ শতাংশ।

সূত্র আরো জানায়, এজেন্ট ব্যাংকিং প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স বিতরণেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। গত সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ৩৮ হাজার ৩৩৫ কোটি টাকা রেমিট্যান্স বিতরণ করা হয়েছে। গত ৩ মাসে রেমিট্যান্স বিতরণে প্রবৃদ্ধি হয়েছে প্রায় ৪৩.৮৪ শতাংশ। আর এক বছরের ব্যবধানে এই প্রবৃদ্ধি ২২১ শতাংশ। বেসরকারি ব্যাংকের মধ্যে ব্যাংক এশিয়া প্রথম কার্যক্রম শুরু করে ব্যাংকটি বর্তমানে এজেন্ট ব্যাংকিংয়ে শীর্ষে রয়েছে।


আরোও অন্যান্য খবর
Paris