মঙ্গলবার

২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মধ্যপ্রাচ্যের পরিস্থিতির আলোকে প্রস্তুতি নিতে মন্ত্রীদের নির্দেশ দিলেন প্রধানমন্ত্রী

Paris
Update : বুধবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২৪

মধ্যপ্রাচ্যে ইরান-ইসরায়েল সংকট নিয়ে পুরো ঘটনা প্রবাহের ওপর নজর রেখে প্রস্তুতি নিতে বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে তিনি এ নির্দেশনা দেন। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন সাংবাদিকদের এমন তথ্য দিয়েছেন। ইসরায়েল-ইরান সংকট নিয়ে কোনো আলোচনা হলো কি না বা প্রধানমন্ত্রী কোনো নির্দেশনা দিয়েছেন কি না জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী প্রসঙ্গটা আলোচনা করেন। তিনি বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যে বর্তমানে যে বাস্তবতা তৈরি হচ্ছে, সেটির দিকে সংশ্লিষ্ট সকলকে নজর রাখা। মন্ত্রিসভার সকল সদস্য, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে বলেছেন তীক্ষ্ণ নজর রাখার জন্য। এই ঘটনার পর এবং এতে সম্ভাব্য রিঅ্যাকশন কী হতে পারে, আমাদের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে প্রস্তুতি নিতে বলেছেন। সেটি কীভাবে আমরা মোকাবিলা করব, কনফ্লিক্ট যদি দীর্ঘমেয়াদি হয়, সেগুলো মোকাবিলা করার জন্য আমরা কী করতে পারি, সেজন্য প্র্রস্তুতি নিতে বলেছেন এবং সেগুলো এক্সারসাইজ করতে বলেছেন। সেই নির্দেশনা দিয়েছেন। তিনি (প্রধানমন্ত্রী) বলেছেন ঘটনা প্রবাহের দিকে নজর রাখতে। যদি দীর্ঘমেয়াদি হয় তখন যে সম্ভাব্য পরিস্থিতি হতে পারে বা বিভিন্ন সেক্টরে যে ইমপ্যাক্ট পড়তে পারে, সেটি যেন সংশ্লিস্ট সেক্টর থেকে এক্সারসাইজ করে প্রস্তুত করে সেটি মোকাবিলা করার জন্য যেন তারা পরিকল্পনা নেন এবং প্রস্তুতি নেন। সে প্রস্তুতি নিতে বলেছেন। যার যার সেক্টরে যেন প্রস্তুতি নেন। অর্থনীতির ওপর প্রভাব বা তেলের দাম বৃদ্ধি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী কিছু বলেছেন কি না জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, প্রথমত আলোচনা হয়নি। অর্থনীতি বা তেলের দাম এরকম না। তিনি বলেছেন, প্রত্যেককে এক্সারসাইজ করতে। তিনিও এক্সারসাইজ করছেন। সকলকে বলেছেন। যখনই পরিবর্তন বা চ্যালেঞ্জ দেখব তখনই যেন অ্যাকশন। আমরা যেন রি-অ্যাকটিভ না, আমরা যেন প্রো-অ্যাকটিভ হই। সেজন্য প্রস্তুতি নিতে বলেছেন। ব্যয় সাশ্রয়ী হতে বলেছেন কি না প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যা যা করণীয় প্রস্তুতি নিতে বলেছেন। হয়তো জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে যেতে পারে, তখন তার প্রভাব কী, কী করা যায়, সেসব বিষয়ে পরিকল্পনা রাখতে বলেছেন। এদিকে, মন্ত্রিপরিষদ বৈঠকে অনুমোদন পাওয়া সিদ্ধান্তগুলো দ্রুত বাস্তবায়নের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কেবিনেট মিটিংয়ে অনুমোদিত সিদ্ধান্ত এখনও কেন বাস্তবায়নাধীন রয়েছে তার কারণও জানতে চেয়েছেন তিনি। মো. মাহবুব হোসেন জানান, মন্ত্রিপরিষদের বৈঠক অনুমোদন পাওয়া ১৬টি আইন রয়েছে—যা এখনও আইন আকারে উপস্থাপনের জন্য সংসদে পাঠানো সম্ভব হয়নি। এর মধ্যে ভূমি মন্ত্রণালয়ের একটি, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ৪টি আইন রয়েছে। এসব সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নাধীন রয়েছে বলে মন্ত্রিপরিষদকে অবহিত করা হলে কেন বাস্তবায়নাধীন রয়েছে, এখনও কেন বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি, তা বিস্তারিত আকারে জানাতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। মন্ত্রিপরিষদ সচিব আরও জানান, যেসব আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় চূড়ান্ত অনুমোদনের পরও সংসদে উপস্থাপনের জন্য পাঠানো সম্ভব হয়নি—কেন তা সম্ভব হয়নি, সে বিষয়ে দ্রুততম সময়ের মধ্যে জানাতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। কবে নাগাদ এসব সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে বা আদৌ বাস্তবায়ন সম্ভব হবে কিনা তাও জানাতে বলেছেন তিনি। প্রয়োজনে সেসব সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হলেও যেন তা মন্ত্রিপরিষদকে অবহিত করা হয়, সংশ্লিষ্টদের এমন নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।-এফএনএস


আরোও অন্যান্য খবর
Paris