শনিবার

২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘খুব শিগগিরই’ পাল্টা আক্রমণে যাচ্ছে ইউক্রেন

Paris
Update : শুক্রবার, ২৪ মার্চ, ২০২৩

এফএনএস
চার মাস ধরে রাশিয়ার আক্রমণ প্রতিহত করতে থাকা ইউক্রেন তাদের দীর্ঘ প্রতীক্ষিত পাল্টা আক্রমণ শুরু করতে যাচ্ছে। ইউক্রেনের এক সামরিক কমান্ডার বলেছেন, খুব শিগগিরই এই পাল্টা আক্রমণ শুরু হবে। কারণ শীতে বাখমুতে বড় ধরনের আক্রমণ চালিয়ে আসা রুশ সেনাদের অভিযান গতি হারাতে শুরু করেছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে। ইউক্রেন যে ‘খুব শিগগিরই’ পাল্টা আক্রমণ শুরু করতে যাচ্ছে, এই কথা বলেছেন ইউক্রেনীয় পদাতিক বাহিনীর শীর্ষ কমান্ডার কর্নেল জেনারেল ওলেক্সান্ডার সিরস্কি। তার এই মন্তব্য ইঙ্গিত দিচ্ছে যে, রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিজেদের সামরিক কৌশলে পরিবর্তন আনার খুব কাছাকাছি পৌঁছে গেছে দেশটি। বিশেষ করে শীতকালে রাশিয়া নৃশংস আক্রমণ প্রতিহত করার পর। রুশ আক্রমণের নেতৃত্বে থাকা ইয়েভজেনি প্রিগোজিনের ভাড়াটে বাহিনী ওয়াগনার কয়েক মাস ধরে বাখমুত দখলের চেষ্টা করছে। চলমান যুদ্ধে সবচেয়ে দীর্ঘ ও রক্তাক্ত লড়াইয়ে পরিণত হয়েছে এই আক্রমণ। টেলিগ্রামে সিরস্কি বলেছেন, রাশিয়া এই লড়াইয়ে উল্লেখযোগ্য শক্তি হারাচ্ছে। খুব শিগগিরই আমরা এই সুযোগ কাজে লাগাব। অতীতে কিয়েভ, খারকিভ, বালাক্লিয়া ও কুপিয়ানস্কে আমরা যেমনটি করেছি। গত বছর কিয়েভে রুশ আক্রমণ প্রতিহত করা এবং মস্কোর বাহিনীকে পিছু হটার ক্ষেত্রে ইউক্রেনীয় কৌশলের নেপথ্যে থাকা শীর্ষ কমান্ডারদের একজন ছিলেন সিরস্কি। কিন্তু নভেম্বরে ইউক্রেনের সর্বশেষ বড় আক্রমণের পর রণাঙ্গনে ইউক্রেন শুধু রুশ হামলা প্রতিহত করা যাচ্ছে। কিন্তু নভেম্বরের পর থেকে রাশিয়া নিজেদের রিজার্ভ সেনা, নতুন নিয়োগকৃত সেনা এবং কারাগার থেকে সংগৃহীত ভাড়াটে যোদ্ধাদের রণাঙ্গনে পাঠিয়েছে। যদিও রাশিয়া এই সময়ে খুব বেশি ইউক্রেনীয় ভূখণ্ড দখল করার মতো সফলতা পায়নি। আর ইউক্রেন দৃশ্যত বাখমুতের নিয়ন্ত্রণ হারানোর কাছাকাছি থাকলেও সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেনাদের পিছু হটতে বলবে না। যতক্ষণ পারা যায় তারা রুশ সেনাবাহিনীর ক্ষতি সাধন করতে চায়। এতে আগস্টের পর থেকে রণাঙ্গনে কোনো সাফল্য অর্জন থেকে বঞ্চিত হয়েছে রাশিয়া।দীর্ঘদিন ধরে কিয়েভ বলে আসছে এই বছরের কোনো একসময় পাল্টা আক্রমণ শুরু করবে। এতে পশ্চিমাদের নতুন সরবরাহকৃত অস্ত্র ব্যবহার করা হবে। বাখমুতে রুশ সেনারা যে মোমেন্টাম হারাচ্ছে, এই বিষয়ে মস্কোর কোনো প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি। তবে ওয়াগনার প্রধান সম্প্রতি ইউক্রেনের সম্ভাব্য পাল্টা আক্রমণ নিয়ে রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে সতর্ক করেছেন। গত বুধবার ব্রিটেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বাখমুতের পশ্চিমাঞ্চলে স্থানীয়ভাবে একটি পাল্টা আক্রমণ চালিয়েছে ইউক্রেন। এর ফলে ইউক্রেনীয় সেনাদের রসদ পাঠানোর রুটে রুশ আক্রমণ কিছুটা শিথিল হবে। তবে এখনও বাখমুতে ইউক্রেনীয় সেনাদের ঘেরাওয়ে পড়ার ঝুঁকি রয়েছে। কিন্তু রুশ আক্রমণ গতি হারানোর কারণে তারা যে সীমিত মোমেন্টাম পেয়েছিল তা হারানোর বাস্তব পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রণাঙ্গন পরিদর্শন অব্যাহত রেখেছেন ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। গত বুধবার বাখমুতের কাছাকাছি এলাকায় যাওয়ার পর এবার তিনি খেরসন গিয়েছেন।


আরোও অন্যান্য খবর
Paris