আরা ডেস্ক : মেট্রোরেলকে বাংলাদেশের জনগণের মাথার মুকুটে ‘অহংকারের পালক’ হিসেবে অভিহিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার রাজধানীর উত্তরার ১৫ নম্বর সেক্টরের ‘সি’ ব্লকের মাঠে মেট্রোরেল উদ্বোধনের পর সুধী সমাবেশে বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের উন্নয়নে এবং অগ্রযাত্রায় আরেকটি পালক আজ বাংলাদেশ তথা ঢাকা এমআরটি সিক্স উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যারা উপস্থিত রয়েছেন, পাশাপাশি সারা বাংলাদেশ এবং প্রবাস থেকে যারা অবলোকন করছেন, আমি সবাইকে আমার আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু করে বাংলাদেশ ও বাঙালি জাতি সারা বিশ্বে মর্যাদা পেয়েছে। আজকে আমরা আরেকটি নতুন অহংকারের পালক বাংলাদেশের জনগণের মাথার মুকুটে সংযোজিত করলাম। এটা হচ্ছে এমআরটি লাইন সিক্স।’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘উত্তরা থেকে এই মেট্রোরেল কমলাপুর রেলস্টেশন পর্যন্ত সংযোজিত হবে। এর প্রথম ফেজ আসমরা উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত শুভ উদ্বোধন করেছি। মোট ২১ পয়েন্ট ২৬ কিলোমিটার অংশের বাকি অংশও আমরা খুব শিগগিরই সমাপ্ত হলে আমরা উদ্বোধন করবো।’ তিনি আরবো বলেন, ‘মেট্রোরেলের উদ্বোধনের সঙ্গে সঙ্গে প্রযুক্তিগত দিক থেকে অন্তত চারটি মাইলফলক বাংলাদেশের জনগণকে স্পর্শ করলো। এক. নিজেই একটি মাইলফলক, দুই. প্রথম বাংলাদেশ বৈদ্যুতিক ট্রেনের যুগে প্রবেশ করল, তিন. মেট্রোরেল দূরনিয়ন্ত্রিত পদ্ধতিতে পরিচালিত হবে এবং রিমোট কন্ট্রোল দ্বারা ডিজিটাল পদ্ধতিতে এটি পরিচালিত করা হবে, চার. বাংলাদেশ দ্রুতগতিসম্পন্ন ট্রেনের যুগে পদার্পন করলো। এই মেট্রোরেলের সর্বোচ্চ গতি হবে ১১০ কিলোমিটার প্রতিঘণ্টায়।’