রবিবার

৩রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

১৯শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

আজ মেট্রোরেলের যাত্রা সূচনা করবেন প্রধানমন্ত্রী

Paris
Update : বুধবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২২

এফএনএস
সব প্রস্তুতি শেষ; এখন কেবল অপেক্ষা, কখন সবুজ পতাকা দুলিয়ে মেট্রোরেলের যাত্রার সংকেত দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার সকালে উত্তরা উত্তর স্টেশনে হবে এই আনুষ্ঠানিকতা। মেট্রোরেলের উদ্বোধনী যাত্রায় খোদ সরকারপ্রধান অবতীর্ণ হবেন রেলের গার্ডের ভূমিকায়। পরে সেই সবুজ পতাকায় নিজের স্বাক্ষরও তিনি রেখে যাবেন। প্রধানমন্ত্রীই হবেন এ বৈদ্যুতিক ট্রেনের প্রথম যাত্রী। মেট্রোরেলের উদ্বোধনী আয়োজন সম্পর্কে জানাতে গতকাল মঙ্গলবার আগারগাঁও মেট্রো স্টেশনে সংবাদ সম্মেলনে আসেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি জানান, আজ বুধবার বেলা ১১টায় উত্তরার ১৫ নম্বর সেক্টরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানস্থলে যাবেন প্রধানমন্ত্রী। ধাপে ধাপে বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতা শেষে দুইশ জন আমন্ত্রিত অতিথিকে সঙ্গে নিয়ে মেট্রোরেলে চেপে তিনি আগারগাঁও প্রান্তে আসবেন। উত্তরা থেকে মতিঝিল হয়ে কমলাপুর পর্যন্ত ২২ দশমিক ২৬ কিলোমিটার দীর্ঘ এ মেট্রোরেল দেশের যোগাযোগ ইতিহাসে নতুন সংযোজন। আপাতত উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত এলাকা জনগণের যাতায়াতের জন্য খুলে দেওয়া হচ্ছে। ২০২৪ সালের মধ্যে পুরো পথ বাণিজ্যিক যাত্রার জন্য প্রস্তুত হবে বলে কর্তৃপক্ষ আশা দিচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের বলেন, পদ্মাসেতুর উদ্বোধনের আদলে মেট্রোরেল উদ্বোধনের দিনও একটি সুধী সমাবেশ হবে। উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরে সেই অনুষ্ঠানে মেট্রোরেলের ফলকের একটি প্রতিরূপ উন্মোচন করবেন প্রধানমন্ত্রী। “বেলা ১১টা ১৫ মিনিটে পয়রা অবমুক্তকরণ ও ফায়ারওয়ার্কসের পরিকল্পনা থাকলেও সেটা বাদ দেওয়া হয়েছে। বেলা ১১টা ২০ মিনিটে মোনাজাত হবে।” মন্ত্রী জানান, সুধি সমাবেশ শুরু হবে ১১টা ২৫ মিনিটে। ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমসিটিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন ছিদ্দিকের সঞ্চালনায় সেখানে কয়েকজন বক্তব্য দেবেন। “সচিব সাহেব স্বাগত বক্তব্য দেবেন, জাপানের রাষ্ট্রদূত বক্তব্য দেবেন। এরপর সভাপতির বক্তব্য দেব আমি। ১২টা ২৫ মিনিটে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভাষণ দেবেন। এরপর এরিয়াল ভিউ প্রদর্শনী হবে। থিমসং পরিবেশন হবে,” বলেন ওবায়দুল কাদের। প্রধানমন্ত্রী সুধী সমাবেশে বক্তব্য শেষে উত্তরা উত্তর স্টেশন পরিদর্শন করবেন শেখ হাসিনা। মূল ফলক পরিদর্শন করে ফলকের পাশে একটি তেঁতুল গাছের চারা রোপন করবেন প্রধানমন্ত্রী। কাদের বলেন, এরপর সেখান থেকে প্ল্যাটফর্মে উঠে টিকিট মেশিন ব্যবহার করে টিকেট কিনবেন সরকারপ্রধান। “সেখানে তাকে মেট্রোরেল ও প্ল্যাটফর্মগুলো সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হবে। প্ল্যাটফর্মে প্রধানমন্ত্রী সবুজ পতাকা নেড়ে বাংলাদেশের প্রথম মেট্রোরেলের চলাচলের শুভ সূচনা করবেন। স্মারক হিসাবে সবুজ পতাকায় স্বাক্ষর করবেন।” পরে প্রধানমন্ত্রী তার জন্য সংরক্ষিত কোচের দরজায় ফিতা কেটে ট্রেনে উঠবেন। ট্রেন তিনি আমন্ত্রিত অতিথির সঙ্গে কুশল বিনিময় করবেন। তারপর আগারগাঁও স্টেশনে নেমে প্রধানমন্ত্রী সেখান থেকে গণভবনে ফিরবেন বলে জানান কাদের।


আরোও অন্যান্য খবর
Paris