স্টাফ রিপোর্টার
দেশব্যাপি পাঁচ দফা দাবি বাস্তবায়নে সুশৃঙ্খল আন্দোলনে নেমেছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের আওতাধীন সংযুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারী কল্যাণ পরিষদ। আন্দোলনের অংশ হিসেবে সোমবার থেকে পালিত হচ্ছে সকল উপজেলা, জেলা এবং অধিদপ্তরে অর্ধদিবস (সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২ পর্যন্ত) কর্মবিরতি। যা আগামী বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত চলছে।
জানা গেছে, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর, জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন অফিস এবং উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার অফিস অন্তর্ভূক্ত। এসব অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ তাদের কর্মদক্ষতা, কর্তব্যনিষ্ঠা ও নিরলস পরিশ্রমের মাধ্যমে দেশের জনগণের সেবা দিচ্ছেন। কিন্তু জনবল কাঠামো অনুযায়ী কর্মকর্তা-কর্মচারীর পদ শূন্য থাকায় অর্পিত দায়িত্ব পালনে একদিকে হিমশিম খাচ্ছেন এবং অন্যদিকে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পদ আপগ্রেডেশন হয়নি।

 

এনিয়ে এ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাঝে চরম হতাশা বিরাজ করছে। সংযুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারী কল্যাণ পরিষদের দাবিসমুহ হচ্ছে-দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন-২০১২ এর আলোকে প্রস্তাবিত জনবল কাঠামো ও নিয়োবিধি বাস্তবায়ন, জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা (ডিআরআরও)’র পদ আপগ্রেডেশন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও)’র পদ আপগ্রেডেশন, সচিবালয়ের ন্যায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের কর্মচারীদের পদনাম পরিবর্তন ও আপগ্রেডেশন এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সকল শূন্যপদ পদোন্নতি/চলতি দায়িত্ব/নিয়োগের মাধ্যমে পূরণ। ১২-১৫ সেপ্টেম্বর দেশের সকল উপজেলা, জেলা এবং অধিদপ্তরে অর্ধদিবস (সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২ পর্যন্ত) কর্মবিরতি পালন, ১৫ সেপ্টেম্বর বেলা ১২টা ৫ মিনিটে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে দাবি-দাওয়া সম্বলিত স্মারকলিপি প্রদান। এছাড়াও পরবর্তী কর্মসূচি প্রণয়নের লক্ষ্যে আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সংযুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারী কল্যাণ পরিষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে।

নওগাঁ
নওগাঁ প্রতিনিধি : জনবল কাঠামো ও নিয়োগবিধি বাস্তবায়নসহ পাঁচ দফা দাবীতে নওগাঁয় কর্মবিরতি পালন করেছে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারী কল্যাণ পরিষদ। গতকাল সোমবার সকাল ৮টা থেকে জেলার ১১টি উপজেলায় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসে অর্ধ দিবস কর্মবিরতি পালন করে। পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচী অনুযায়ী তারা এ কর্মবিরতি পালন করেছে। আগামী বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত এ কর্মসূচী চলবে। কর্মবিরতি পালন করায় অফিসে সেবা নিতে আসা সাধারণরা বিড়ম্বনায় পড়ে। জানা গেছে, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সঠিক পদমর্যাদা না থাকায় দূর্যোগ ব্যবস্থাপনার সঠিক লক্ষ্যে বাংলাদেশ এখনো পৌঁছাতে পারেনি।

তাই দেশের যেকোনো কঠিন দূর্যোগ মোকাবিলায় জন্য দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন-২০১২ এর আলোকে প্রস্তাবিত জনবল কাঠামো ও নিয়োগবিধি বাস্তবায়ন, জেলা ত্রাণ ও পুর্ণবাসন কর্মকর্তা (ডিআরআরও) পদের আপগ্রেডেশন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) পদ আপগ্রেডেশন, সচিবালয়ের ন্যায় দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের কর্মচারীদের পদনাম পরিবর্তন এবং দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সব শূন্যপদ/পদোন্নতি/চলতি দায়িত্ব নিয়োগের মাধ্যমে পূরণের এ পাঁচটি যৌক্তিক দাবি নিয়ে উক্ত অধিদপ্তরের সংযুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারী কল্যাণ পরিষদ গত ৮/১০ বছর ধরেই সুশৃঙ্খল আন্দোলন করে আসছে।

নওগাঁ সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) প্রকৌশলী মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন ২০১২ এর আলোকে জনবল কাঠামো এবং নিয়োগবিধি বাস্তবায়নে কার্যকর পদক্ষেপ গৃহীত না হওয়ায় দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সর্বস্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা সূচনালগ্ন হতে সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন ও ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে আসছে। আইন পাশ হওয়ার ১০ বছর অতিবাহিত হলেও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের বিভিন্ন পদ আপগ্রেডেশন ও নতুন পদ সৃষ্ট না হওয়া এবং বিভিন্ন পদ শূন্য থাকায় মাঠ পর্যায়ের কাজ কর্মে স্থবিরতা নেমে এসেছে। ফলে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মনে চরম হতাশা বিরাজ করছে। আগামী বৃহস্পতিবার আমাদের দাবী সম্বলিত জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হলে জানান তিনি।