বাগমারা প্রতিনিধি : রাজশাহীর বাগমারায় রবিউল ইসলাম নামে ২৩ মাসের এক শিশুর মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। শিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। গতকাল বুধবার সকালে উপজেলার আউচপাড়া ইউনিয়নের নাড়ুপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে। ওই সময় শিশু রবিউল ইসলাম তার দাদার সাথে বাড়ির বারান্দায় ছিলেন। পুলিশ জানায় শিশুটির পিতা সোহেল রানা সকালে বাড়ির বারান্দায় দাদার সামনে রেখে বাজারে যায়। এ সময় ডেবিল ফ্যান চালু ছিল। হঠাৎ করেই দাদার অজান্তে সেই ফ্যানের ভিতরে আঙ্গুল প্রবেশ করে। ওই সময় বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে পড়ে শিশু রবিউল ইসলাম। সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

 

জানাগেছে, প্রেম করে নিহত ওই শিশুর মাকে বিয়ে করে সোহেল রানা। বিয়ের পর থেকে সোহেলের পরিবার থেকে মেনে নেননি পুত্রবধূকে। এরই মধ্যে তাদের সংসারে আসে একটি সন্তান। পারিবারিক কোলহের কারনে ২৩ মাসের শিশু রবিউলকে রেখেই মা তার বাবার বাড়ি ভোলায় চলে যায়। এর পর থেকেই রবিউল ইসলাম তার পিতা ও দাদা-দাদীর কাছেই থাকতেন। এ ঘটনায় কোন অভিযোগ হয়নি। হাট-গাঙ্গোপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক আফজাল হোসেন বলেন, খবর পেয়ে শিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্ত শেষে মৃত্যুর কারন জানা যাবে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।