এফএনএস : নীতিমালা অনুযায়ী জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত এই তিন মাস সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বদলি করা হয়। কিন্তু করোনার কারণে এই বদলি কার্যক্রম দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল। গতকাল সোমবার নিয়মিত এই বদলি কার্যক্রমের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর। অধিদফতরের নির্দেশনায় জানানো হয়, করোনাভাইরাসের কারণে প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় ২০২০ সালের ২৫ অক্টোবরের আদেশে শিক্ষক বদলি বন্ধ করেছিল অধিদফতর। ২০২০ সালের ২৫ অক্টোবরের আদেশ বাতিল করা হলো। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর জানায়, জানুয়ারি থেকে মার্চ এই তিন মাস নিয়মিত বদলির সময়। শিক্ষকদের এই বদলি কার্যক্রম বন্ধ ছিল করোনার কারণে।

এর ফলে আগামী জানুয়ারিতে বদলি কার্যক্রম চলবে। অন্যদিকে চলতি মাসে আন্তউপজেলা বদলি কার্যক্রম অনলাইনে শুরু করা হবে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের কাজ চলমান রয়েছে। এই নিয়োগ সম্পন্ন হলে অনলাইনে প্রাথমিক শিক্ষক বদলি চালু করা হবে। এর আগে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, জুলাইয়ে শিক্ষক নিয়োগ সম্পন্ন করা হবে। তবে শিক্ষক নিয়োগের তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ায় নির্ধারিত সময় (জুলাই মাস) শিক্ষক নিয়োগ সম্পন্ন হবে না।