এফএনএস : বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দেখাতে গত শুক্রবার ইংল্যান্ডে গিয়েছেন তাসকিন আহমেদ। মঙ্গলবার চিকিৎসকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন এই পেসার। এরপর এমআরআইসহ তিনটি টেস্ট করানো হয় তার। রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর স্বস্তির নিশ্বাস ফেলেছেন তাসকিন। হালকা সমস্যা থাকলেও এই মুহূর্তে অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন নেই এই পেসারের। সংবাদমাধ্যমকে তাসকিন নিজেই দিয়েছেন খবরটা, ‘বড় কোনও সমস্যা নেই। কাঁধে হালকা সমস্যা আছে। এই মুহূর্তে অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন নেই। ইনজেকশন এবং রিহ্যাবের মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করা হবে।

যদি ঠিক না হয় তাহলে হয়তো ভবিষ্যতে অস্ত্রোপচার লাগতে পারে।’ তাসকিনের সঙ্গে লন্ডনে অবস্থান করছেন বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী। তার তত্ত্বাবধানেই আছেন ডানহাতি পেসার।বিসিবির এই চিকিৎসক বলেছেন, ‘তাসকিন কীভাবে রিহ্যাব প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত হবে, এটা নিয়ে এখনও পরিকল্পনা হয়নি। আমরা এই মুহূর্তে সব রিপোর্ট সংগ্রহ করছি। এরপর বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করে তাসকিনের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে এতটুকু বলতে পারি, তাসকিনের আপাতত অস্ত্রোপচার লাগছে না।’ কাঁধের চোটের কারণে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর শেষ না করেই দেশে ফিরছিলেন তাসকিন।

এই চোট নিয়ে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে ডারবান টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে বোলিং করেছিলেন তিনি। অথচ ব্যথা থাকায় দ্বিতীয় ইনিংসে বল করার কথাই ছিল না। একপর্যায়ে ডান কাঁধে অস্বস্তিবোধ করায় মাঠ থেকে উঠে গেলেও পরে ওই অবস্থাতেই বোলিং করতে দেখা গেছে আবার। ওই সফরের ওয়ানডে সিরিজে প্রথমবারের মতো সিরিজসেরা হন তাসকিন। তারপরও এই ইনজুরির কারণে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে নেই তিনি। কতদিন মাঠের বাইরে থাকবেন, সেটাও নিশ্চিত নয়। যদিও ক্রিকেটপ্রেমীরা তার ফেরার অপেক্ষায়। ইনজুরি মুক্ত হয়ে আরও ক্ষুরধার তাসকিনকে দেখার প্রত্যাশা তাদের!