এফএনএস : বগুড়ার আদমদীঘির সান্তাহার রেলস্টেশনে আটক করা এক পকেটমারকে আড়ালে নিয়ে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগে মোসলিম উদ্দিন নামের রেল পুলিশের এক সদস্যকে (কনস্টেবল) প্রত্যাহার (ক্লোজড) করা হয়েছে। গতকাল সোমবার সকালে সান্তাহার রেলওয়ে থানার ওসি সাকিউল আযম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বর্তমানে ওই পুলিশ সদস্য পাকশী পুলিশ লাইনে সংযুক্ত রয়েছেন।

সূত্র জানায়, শুক্রবার রাতে নওগাঁর দোগাছী গ্রামের বাসিন্দা রোকনুজ্জামান রুকু তার বোনের মেয়েকে (ভাগনি) ঢাকাগামী নীলসাগর আন্তঃনগর এক্সপ্রেস ট্রেনে তুলে দিতে সান্তাহার জংশন স্টেশনে আসেন। ট্রেন স্টেশনে এলে তাকে তুলে দেওয়ার সময় এক পকেটমার তার পায়জামার পকেট থেকে টাকা ও ভাগনির হাতব্যাগ থেকে অলংকার তুলে নেওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় পকেটমারকে হাতেনাতে ধরে প্ল্যাটফর্মে দায়িত্বরত মোসলেম উদ্দিন নামের রেল পুলিশের এক সদস্যর কাছে তারা সোপর্দ করেন।

ট্রেন চলে যাওয়ার পর রুকু জানতে পারেন আটক পকেটমারকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি তিনি জিআরপি থানার ওসিকে জানালে শনিবার ওই পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করে পাকশী পুলিশ লাইনে পাঠানো হয়। সান্তাহার রেলওয়ে থানার ওসি সাকিউল আযম জানান, পকেটমারকে আটক করে থানায় না নিয়ে ছেড়ে দেওয়ায় পুলিশ সদস্য মোসলিম উদ্দিনকে ক্লোজ করে পাকশী পুলিশ সদর দপ্তরে নেওয়া হয়েছে।