এফএনএস : শীত এলেই শরীরে রোগশোক জেঁকে বসে। ঠাণ্ডা-কাশিসহ সব সমস্যায় যেন শীতকালে বেড়ে যায়। এজন্য এ সময় সুস্থ থাকতে সচেতন ও সতর্ক থাকতে হবে।
সাধারণ ঠাণ্ডা : শীতের দিনে সাধারণ একটি রোগ হলো ঠাণ্ডা। বিশেষ করে শীতকালে সহজে শিশুদের ঠাণ্ডা লেগে যায়।

ফ্লু : সাধারণ ফ্লুর কারণে শীতকালে শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যেতে পারে। অর্থাৎ জ¦র আসতে পারে। এজন্য সতর্ক থাকুন এ সময়।
গলা ব্যথা : শীতের দিনের বড় একটি সমস্যা হলো গলা ব্যথা। যেকোনো ভাইরাল ইনফেকশনের কারণে গলা ব্যথা হতে পারে।

জয়েন্টে ব্যথা : যাদের জয়েন্টে ব্যথার সমস্যা থাকে শীতকালে এ ব্যথা কয়েক গুণ বেড়ে যায়। এজন্য গরম কাপড় পরাসহ ব্যথার জায়গায় গরম সেঁক দিতে হবে।
হার্ট অ্যাটাক : শীতকালে হার্টের ওপর চাপ বেড়ে যায়। কারণ এ সময় বেশির ভাগ দিনে দেখা যায় অনেকের রক্তচাপ বেশি। এজন্য হার্ট অ্যাটাক হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়।
শুষ্ক ত্বক : যাদের শুষ্ক ত্বক, শীতের দিনে তাদের অবস্থা অনেক খারাপ হয়ে যায়। বাতাসে আর্দ্রতা কম থাকার কারণে এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

শীতে হাড় কাঁপুনি : বেশি শীতে শিশু ও বৃদ্ধরা অনেক বেশি কষ্ট পায়। সে সময় এ পরিস্থিতি মোকাবেলা করা তাদের জন্য কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। শীতের দিনে সুস্থ থাকতে চাইলে ওপরের বিষয়গুলো অবশ্যই খেয়াল রাখবেন।