এফএনএস : গুগলকে পেছনে ফেলে বিশ্বের তৃতীয় দামী কোম্পানির জায়গা দখল করে নিয়েছে তেল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সৌদি আরামকো। বুধবারশেয়ারবাজারে দুই ট্রিলিয়ন ডলার মূলধনের মাইলফলক স্পর্শ করায় প্রতিষ্ঠানটি এ অবস্থান অর্জন করে। অপরিশোধিত তেলের দাম যা সাত বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ প্রতি ব্যারেলে ৮২ ডলারেরও বেশি বেড়ে যাওয়ায় আরামকো তালিকার তৃতীয়তে উঠে এসেছে। বার্তা সংস্থা এপি’র প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, সৌদি আরামকো বিশ্বের সবচেয়ে দামী প্রতিষ্ঠানের তালিকায় এখন কেবল অ্যাপল ও মাইক্রোসফটের পেছনেই রয়েছে।

বেশিরভাগ মালিকানাই সৌদি আরবের নিয়ন্ত্রণে থাকা প্রতিষ্ঠানটির মাত্র দুই শতাংশ শেয়ার অন্তর্ভুক্ত রয়েছে সৌদি তাদাউল শেয়ারবাজারের। বুধবার কার্যদিবসের মধ্যভাগে ৩৭ দশমিক ৬ রিয়াল বা ১০ দশমিক ০৩ মার্কিন ডলারে পৌঁছেছিল সৌদি আরামকোর শেয়ারের দর। তবে শেষের দিকে কমে গিয়ে শেয়ারের দর ৩৭ দশমিক ২ রিয়াল বা ৯ দশমিক ৯২ ডলারে দাঁড়ায়। তবে এরপরও মূলধনের হিসেবে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম প্রতিষ্ঠানের জায়গাটি দখল করে নেয় আরামকো। যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান সৌদি আরামকোকে শেয়ারবাজারে অন্তর্ভুক্ত করার পরিকল্পনা করেছিলেন। ২০১৯ সালের শেষের দিকে তার নির্দেশেই প্রতিষ্ঠানটি শেয়ারবাজারে নাম লেখায়।

সম্প্রতি গত সাত বছরের মধ্যে বিশ্ববাজারে তেলের দাম সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছার পরও চাহিদা না কমায় ব্যাপক লাভের মুখ দেখে সৌদি আরামকো। আনুমানিক ৪৭ বিলিয়ন বা ৪ হাজার ৭০০ কোটি ডলার চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসেই আয় করে নেয় প্রতিষ্ঠানটি। যা গত বছর একই সময়ের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। এর ফলে করোনার আঘাত কাটিয়ে দ্রুতই আগের অবস্থায় ফিরে যায় আরামকো।