স্টাফ রিপোর্টার : করোনা সংক্রমণ রোধে এক সপ্তাহের লকডাউন যথেষ্ট নয় বলে জানিয়েছেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী। গতকাল সোমবার সকালে তিনি সাংবাদিকদের জানান, লকডাউন বাড়িয়ে ১৪ দিন করলে করোনা পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব বলে। তিনি বলেন, মাত্র চারদিন হল লকডাউনের। এই স্বল্প সময়ে করোনা পরিস্থিতি নির্ণয় করা মুশকিল।

গত ২৪ ঘণ্টায় রামেকে করোনা উপসর্গ ও সংক্রমণে ১২ জনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। এদের মধ্যে রাজশাহী জেলার তিন জন। তাই এখনই বলা যাবে না সাত দিনের লকডাউন কতটা কার্যকর হবে। জেনারেল শামীম ইয়াজদানী বলেন, প্রতিদিন গড়ে ৩০-৪০ জন রোগী ভর্তি হচ্ছে। অথচ সে তুলনায় সুস্থ হচ্ছেন অর্ধেকের কম। সাত দিনের লকডাউনে পরিস্থিতি কোন পর্যায়ে থাকছে সেটা দেখার পর নিশ্চয়ই প্রশাসন এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে।

এদিকে রাজশাহীতে চতুর্থ দিনেও কঠোরভাবে পালিত হয় লকডাউন। দুপুর ১২ থেকে ১টার আগেই নগরীর বিভিন্ন স্থানে লোক সমাগম বন্ধে মাঠে নামে পুলিশ। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে টহল দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের (সাধারণ শাখা) দায়িত্ব রত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অভিজিত সরকার বলেন, চলমান লকডাউন শেষ হওয়ার একদিন আগে করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে আগামীতে লকডাউন বাড়বে না কমবে।

এদিকে রামেকের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ইসলাম জানান, সেখানে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ইউনিটে আরও ১২ জনের প্রাণহানি হয়েছে। এদের মধ্যে ১০ জন সংক্রমণে ও বাকি ২ জন উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেকে রাজশাহীর ৩ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৪ জন, নাটোরের ২ জন ও মেহেরপুরের একজন করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

এ ছাড়া উপসর্গ নিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২ জন মারা গেছেন। তাদের সবাইকে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে মৃতদেহ দাফন করার জন্য বলা হয়েছে। তিনি আরও জানান, পূর্বে মোট রোগী ছিল ২৯৪ জন। তবে ২৪ ঘণ্টায় রামেকে মোট রোগীর সংখ্যা ৩০৭ জন। এরমধ্যে উপসর্গ নিয়ে ভর্তি আছেন ১৫০ জন, করোনাক্রান্ত রয়েছেন ১৫৭ জন। এছাড়াও গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ভর্তি হয়েছেন ৪৪ জন। অন্যদিকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৬ জন।

ডা. সাইফুল বলেন, রামেক হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় মোট করোনা টেস্ট হয়েছে ১৮৮টি, এর মধ্যে ৭৪ জন পজিটিভ পাওয়া গিয়েছে। অন্যদিকে, রাজশাহী মেডিকেল কলেজে মোট টেস্ট হয়েছে ৪৬৪ জনের। এরমধ্যে করোনা ধরা পড়েছে ১৬৯ জনের। এরমধ্যে রাজশাহীর ৮০ জন, নাটোরের ২৬ জন এবং নওগাঁর ৬৩ জন। উল্লেখ্য, রাজশাহীর রামেকে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যুর হার ৪১.১৮%।