শাহানুর আলম বাবু, বাঘা : সরকারী বিধিমালার নিয়মনীতি উপেক্ষা করে রাজশাহীর বাঘা পৌরসভায় ডিসির প্রতিনিধি ছাড়াই ১০টি পদে নিয়োগ পরীক্ষা সম্পুন্ন করার অভিযোগ উঠেছে মেয়র আব্দুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে। গত শুক্রবার উপজেলার মোজাহার হোসেন মহিলা কলেজে প্রার্থীদের লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা গ্রহন করা হয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক কাউন্সিলর জানান, বাঘা পৌরসভার ১০টি পদে নিয়োগ প্রদানের জন্য নাম সর্বস্ব পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে কৌশলে তা গোপন করা হয়।

সেই মোতাবেক আবেদনের শেষ দিন পৌরসভায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির কপি টাঙানো হয়। যার কারনে ১০টি পদে মাত্র ৪১ জন প্রার্থী আবেদন করার সুযোগ পেয়েছে। তারা আরও জানান, মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে পছন্দের প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়া হবে বুঝতে পেরে ১৯জন প্রার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেননি। ১০টি পদে মাত্র ২২ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহন করেন। এমনকি সরকারি বিধি মোতাবেক ১টি পদে নুন্যতম ৩ জন প্রার্থী থাকার নির্দেশনা থাকলেও সার্ভেয়ার পদে মাত্র ১ জন প্রার্থী আবেদন করলেও পরীক্ষা নেয়া হয়। নিজের প্রার্থীদের নিয়োগ দিতে নিয়োগ পরীক্ষার সময় ডিসির মনোনিত প্রতিনিধি উপস্থিত না থাকলেও নিয়োগ পরীক্ষা সম্পুন্ন করা হয়।

এ বিষয়ে বাঘা পৌরসভার মেয়র আব্দুর রাজ্জাকের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়। পরে প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান পিন্টুকে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিধি মোতাবেক লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়। বদলীজনীত কারনে ডিসির মনোনিত প্রতিনিধি উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) কামাল হোসেন উপস্থিত থাকতে পারেননি। তবে বিষয়টি ডিসিকে অবগত করা হয়েছে। তিনি পরীক্ষা নেয়ার অনুমতি দিয়েছেন। উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভুমি) এর সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাঁর নম্বরটিও বন্ধ পাওয়া যায়।