এফএনএস : ছয় বছর আগে হাঁপানিতে প্রবল অসুস্থ হয়ে মাত্র ৯ বছর বয়সেই প্রাণ হারায় ব্রিটেনের এল্লা আদু কিসি ডেবরা। মৃত্যুর প্রকৃত কারণ নিয়ে মামলা চলছিল। সম্প্রতি সেই মামলায় বায়ুদূষণকে দায়ী করে রায় দিয়েছে আদালত। আদালত জানায়, নির্দিষ্ট সহ্য ক্ষমতার চেয়ে অনেক বেশি বিষাক্ত নাইট্রোজেন ডাই অক্সাইড ঢুকেছিল এল্লার শরীরে। তাতেই তার শ্বাসকষ্টের সমস্যা এবং মৃত্যু। আদালতের এই রায়ের পর স্বস্তি প্রকাশ করে এল্লার মা। লন্ডনের দক্ষিণপূর্বে থাকতো এল্লা।

জানা গেছে, ২০১৩ সালে মৃত্যুর আগের তিন বছরে অন্তত ৩০ বার তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে। গড়ে বছরে ১০ বার অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিল এল্লা। তার মৃত্যুর পর ২০১৪ সাল থেকে বিচার বিভাগীয় তদন্ত শুরু হয়। এল্লার বাসস্থান এলাকার পরিবেশ খতিয়ে দেখে বোঝা যায়, শুধুমাত্র যানজটের কারণেই সেখানকার বাতাস নাইট্রোজেন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ অনেক বেশি। প্রতিদিন নিঃশ্বাসের সঙ্গে তা শরীরে ঢুকেই এল্লার শ্বাসকষ্টের সমস্যা তৈরি হয়।

ওই এলাকায় অনেক আগেই বায়ুদূষণের মাত্রা ডব্লিউএইচও’র বেঁধে দেয়া মাত্রা ছাড়িয়ে গিয়েছিল। আদালত তার পর্যবেক্ষণে এটাও জানিয়েছে যে, এল্লার মাকে মেয়ের অসুস্থতার কারণ ঠিকমতো জানাননি চিকিৎসকরা। যদি তারা এমনটা করতেন তাহলে মেয়েকে সুরক্ষিত রাখতে বিশেষ ব্যবস্থা নিতে পারতেন তিনি। ফলে মৃত্যু এড়ানো যেতো।