মান্দা প্রতিনিধি : নওগাঁর মান্দায় দীর্ঘ ১৫ বছর পর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আগামি শনিবারের (১৯ ডিসেম্বর) সম্মেলনকে ঘিরে সরব হয়ে উঠেছে নেতাকর্মিরা। চারিদিকে অনেকটা উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। আগামি দিনে কারা উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব দেবেন এমন আলোচনাও চলছে বিভিন্ন এলাকায়।

দলীয় সুত্রে জানা গেছে, সর্বশেষ ২০০৫ সালে মান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ত্রি-বার্ষিক এ সম্মেলনে সভাপতি পদে আলহাজ্ব মোল্লা এমদাদুল হক, সাধারণ সম্পাদক পদে মরহুম জসিম উদ্দিন সরদার ও সাংগঠনিক পদে বিকাশ চন্দ্র মন্ডল নির্বাচিত হয়েছিলেন। এরপর একই কমিটি দিয়ে তিনটি জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও তিনটি উপজেলা পরিষদ নির্বাচন করে আওয়ামী লীগ। এর মধ্যে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনটিসহ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে একটিতে জয়লাভ করে দলটি। এরপরও নতুন কমিটি গঠন নিয়ে মাঝে মধ্যেই দলীয় নেতাকর্মিরা সরব হয়ে ওঠেন। শুরু হয় লবিং গ্রুপিং। কয়েকদিন পর আবার থেমেও যায়। এভাবেই দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে একই কমিটি দিয়ে কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। এর মধ্যে সাধারণ সম্পাদক সরদার জসিম উদ্দিনের মৃত্যুতে পদটি শুন্য হয়ে পড়ে। বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন অধ্যক্ষ জহুরুল ইসলাম। এ পদে দায়িত্ব গ্রহণের পর তিনি তৃণমূলের নেতাকর্মিদের সঙ্গে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রক্ষা করেন। এতে তৃণমূলের রাজনীতি আরও শক্তিশালী হয়ে উঠে।

এ অবস্থায় আগামি শনিবার দলটির ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনকে সফল করতে যাবতীয় প্রস্তুতি প্রায় শেষ। বিভিন্ন এলাকা নির্মাণ করা হয়েছে বেশবিছু তোরণ। ব্যানার, ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে উপজেলা সদরসহ আশপাশের এলাকা। সম্মেলনে ভার্চুয়াল সংযোগে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেতু মন্ত্রী ওবাইদুল কাদের।
দলীয় সুত্র জানায়, সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক এমপি আব্দুল মালেক। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন মুহা. ইমাজ উদ্দিন প্রামানিক এমপি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, কার্যনির্বাহী সদস্য শাহাবুদ্দীন ফরাজী। সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখবেন খাদ্যমন্ত্রী ও নওগাঁ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি।

সম্মেলনে সভাপতি পদ লাভে আগ্রহ প্রকাশ করে জীবন বৃত্তান্ত জমা দিয়েছেন ১০ জন। এরা হলেন, বর্তমান সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোল্লা এমদাদুল হক, সহসভাপতি আব্দুল লতিফ শেখ, নাজিম উদ্দিন মন্ডল ও খলিলুর রহমান বিশ্বাস, মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড. আব্দুল মান্নান, উপজেলা কৃষকলীগের সাবেক সভাপতি সুজাউদ্দৌলা বিপ্লব, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আবুল কালাম আজাদ, প্রবোধ কুমার পোদ্দার (ভুলু), প্রণোনাথ সরকার ও আরফানা আহমেদ ফেন্সি।

এছাড়া সাধারণ সম্পাদক পদে আগ্রহীরা হলেন, বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ জহুরুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক অনুপ কুমার মহন্ত, সাংগঠনিক সম্পাদক গোপাল চন্দ্র প্রামানিক, জেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্রহানী সুলতান মাহমুদ গামা, আতোয়ার রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক মির্জা মাহবুব সুলতান বেগ বাচ্চু, সহদপ্তর সম্পাদক আব্দুল জব্বার, সদস্য প্রবীণ কুমার দাস, আবুল কাসেম প্রামানিক, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি অ্যাড. নাহিদ মোর্শেদ বাবু ও এসএম গোলাম সরওয়ার ঝুন্টু।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোল্লা এমদাদুল হক ও সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যক্ষ জহরুল ইসলাম জানান, দীঘদিন পর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আগামি শনিবারের সম্মেলন সফল করতে নেতাকর্মিদের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন তারা।