এফএনএস : নাটোর সদর হাসপাতালে জানালার কার্নিশ থেকে সদ্য এক নবজাতকের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার সকালে মৃতদেহটি সবার নজরে এলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নবজাতকের লাশ উদ্ধার করে। এই ঘটনায় নবজাতকের মা-বাবাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। অভিযুক্ত দম্পতি হলো- নাটোর সদর উপজেলার নেওগুড়িয়া এলাকার আব্দুল্লাহ রাজ্জাকের ছেলে রাজিব এবং লালপুর উপজেলার আব্দুলপুরের বড়বাড়ী এলাকার আবু সুফিয়ানের মেয়ে সুইটি।

নাটোর সদর থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম জানান, গত বুধবার সাধারণ রোগ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন সুইটি। গত বৃহস্পতিবার রাতের কোনো একসময় সুইটি হাসপাতালের মহিলা ওয়ার্ডের বাথরুমে বাচ্চা প্রসব করেন। পরে তিনি সদ্য জন্ম নেওয়া নবজাতকের মৃতদেহটি জানালা দিয়ে ফেলে দিলে দেহটি জানালার কার্নিশে আটকে যায়। সকালে বিষয়টি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নজরে এলে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়।

তবে প্রসবের সময় নবজাতকটি জীবিত ছিল কি না তা এখনও জানা যায়নি। রাতে সুইটির স্বামী রাজিবও হাসপাতালে ছিলেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাবাসাদে বাচ্চাটি নিজেদের বলে স্বীকার করেছেন ওই দম্পত্তি। নাটোর সদর হাসপাতালের সহকারি পরিচালক আনছারুল ইসলাম হক জানান, নবজাতকের বিষয়টি অবহিত হওয়ার পরে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়েছে। তারা জিজ্ঞাসাবাদ করছেন।