মঙ্গলবার

২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হবিগঞ্জে বিআরটিসি বাসের চাপায় অটো রিক্সার ৮ যাত্রী নিহত

Paris
Update : মঙ্গলবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২০

এফএনএস : হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে বিআরটিসির বাসচাপায় অটোরিকশার আটজন যাত্রী নিহত হয়েছেন। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন। নিহতদের মধ্যে তিনজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। এরা হচ্ছেন-মুড়াউড়া গ্রামের বাসিন্দা আবু তাহেরের স্ত্রী সামিরুন বেগম (২৮), তার মেয়ে মারিয়া বেগম (২) ও ভাবি হালিমা বেগম (২৫)। অন্যান্যের পরিচয় নিশ্চিতের চেষ্টা চলছে। গতকাল সোমবার বিকেল পৌনে ৫টায় উপজেলার ফুলতলী বাজারে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে শেরপুর হাইওয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও নবীগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার অভিযান চালায়।

গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় শেরপুর হাইওয়ে থানার ওসি বিলম চন্দ্র কর্মকার জানান, বিকেল পৌনে পাঁচটার দিকে উপজেলার সাতাইহাল এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত আট জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এদের মধ্যে একটি শিশুও রয়েছে। এ ছাড়া আহতদের উদ্ধার করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নেওয়া হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঢাকা থেকে সিলেটমুখী বিআরটিসি পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস বিপরীত দিক থেকে আসা একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশাকে সামনে থেকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই অটোরিকশায় থাকা ছয় যাত্রীর মৃত্যু হয় পরে আরও দুজন মারা যান। তবে চালক বেঁচে আছেন।

তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। ওসি বিলম চন্দ্র কর্মকার জানান, বাসের ধাক্কায় অটোরিকশারটি দুমড়ে মুচড়ে গেছে। বাসটিও রাস্তার পাশে গর্তে পড়ে গেছে। লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা নিচ্ছে পুলিশ। একইসঙ্গে নিহতদের নাম-পরিচয় ও স্বজনদের পরিচয় জানার চেষ্টা করছে। নবীগঞ্জ থানার ওসি আজিজুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত আট জনের মৃত্যু হয়েছে। আহদের অনেকের কয়েকজনের অবন্থা আশঙ্কাজনক। তাদেরকে নবীগঞ্জ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া গর্তে পড়ে যাওয়া বাসটি উদ্ধারে তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। বাস উদ্ধার হলে ভেতরে কেউ আটকে আছে কি না তা জানা যাবে।


আরোও অন্যান্য খবর
Paris