স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহীর বাগমারায় প্রধানমন্ত্রীর ভিক্ষুক পুনর্বাসন কর্মসূচীর আওতায় উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ২৬ জন নারী-পুরুষ ভিক্ষুকের মাঝে গাভী ক্রয় ও বিতরনে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে ভিক্ষুকদের স্বাবলম্বী করার লক্ষে গাভীগুলো বিতরণ করা হয়েছে বলে জানা যায়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি হিসেবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকতার মাধ্যমে অর্থ উত্তোলন পূর্বক ভিক্ষুকদের মাঝে গাভী ক্রয় করে বিতরনের জন্য ৬ লাখ ৯৩ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা একটি ক্রয় কমিটি গঠন করে দেন। ওই কমিটি গাভীগুলো ক্রয় করেন। গাভীগুলোর যে মূল্য দেখানো হয়েছে তা বাস্তবতার সঙ্গে মিল নাই। কম দামে ক্রয় করে ছাড়পত্রে বেশী টাকা উল্লেখ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের ভিক্ষুকদের যে তালিকা তৈরী করা হয়েছে তাতেও স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে তৈরী করা হয়েছে বলে ভুক্তভোগীরা জানিয়েছেন। এছাড়াও প্রকৃত ভিক্ষুকদের বাদ দিয়ে অপেক্ষাকৃত স্বাবলম্বীদের মাঝে গাভি বিতরণ করা হয়। অপরদিকে গাভীগুলো ক্রয়েও ব্যাপক অনিয়মের ও রুগ্ন গাভী ক্রয়ের অভিযোগ উঠেছে। ক্রয়কৃত গাভীগুলো যে মূল্যে ক্রয় করা হয়েছে তাতে ব্যাপক দুর্নীতি করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্পের উপজেলা সমন্বয়ক আজাহার আলী জানান, গাভীগুলো ক্রয়ে দাম কম বেশী হতে পারে তবে কোন স্বজনপ্রীতি বা দুর্নীতি করা হয়নি। আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, গাভীগুলো বৃহস্পতিবার আহসানগঞ্জ হাট থেকে আজই ক্রয় করা হয়েছে এবং বিতরণ করা হয়েছে।