রবিবার

৩রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

১৯শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মান্দায় প্রবীণ শিক্ষককে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের দায়ে যুবক গ্রেপ্তার

Paris
Update : মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২০

এফএনএস : নওগাঁর মান্দা উপজেলায় এক প্রবীণ শিক্ষককে ‘বিবস্ত্র’ করে নির্যাতনের মামলায় এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত সোমবার রাতে এরশাদ আলী (৩৫) নামের ওই যুবককে নিজ বাড়ি থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। তিনি উপজেলার পাজরভাঙা গ্রামের দিলশাদ আলী মণ্ডলের ছেলে। ‘করাত কলে পরিবেশ দূষণের প্রতিবাদ করায়’ নির্যাতনের অভিযোগ তুলে ওইদিনই সন্ধ্যায় ওই শিক্ষক (৫৫) বাদী হয়ে এরশাদ আলীর বিরুদ্ধে মান্দা থানায় মামলা করেন।

এই শিক্ষকের অভিযোগ, রাজশাহীর বাগমারার বাড়ি থেকে সম্প্রতি নওগাঁর মান্দা উপজেলার পাজরভাঙ্গা গ্রামে মেয়ের বাড়ি বেড়াতে আসেন তিনি। এলাকায় অবৈধ করাত কলের শব্দ দূষণ, কাঠের গুড়া ও ধুলোবালিতে মানুষের ভোগান্তি দেখে গত বুধবার বিকালে তিনি প্রতিবাদ করেন। তিনি বলেন, এতে ক্ষিপ্ত হয়ে হামলা ও নির্যাতন চালান করাতকলের মালিক দিলশাদ আলী মণ্ডলের দুই ছেলে এরশাদ আলী মণ্ডল, আবদুর রাজ্জাকসহ তাদের সহযোগীরা। নির্যাতনের একপর্যায়ে তাকে বিবস্ত্র করে ফেলে বলে তিনি মামলায় অভিযোগ করেন।

পরে গ্রামবাসী ও আত্মীয়-স্বজনরা তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করেন বলে এই শিক্ষক জানান। তবে করাত কলের মালিক দিলশাদ আলী মণ্ডল অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। দিলশাদ আলী মণ্ডল বলেন, আইন মেনে তার করাত কল করা হয়েছে। প্রায় ৩৫ বছর ধরে পাজারভাঙ্গায় মিলটি চালিয়ে আসছেন তারা। কোনো দিনই কারো সমস্যা হয়নি। ওই শিক্ষকের জামাতার কাছে পাওনা রড সিমেন্টের চার লাখ ৫৬ হাজার টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে বলে দিলশাদের দাবি। সেদিন তাদের মধ্যে হাতাহাতি হলেও ওই শিক্ষককে ‘বিবস্ত্র’ করার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এই করাত কল মালিক দিলশাদ আলী।

মান্দা থানার ওসি শাহীনুর রহমান বলেন, এই ঘটনায় প্রথমে থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয় গত বুধবার। পরে তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে ওই শিক্ষক বাদী হয়ে তিন জনের নাম উল্লেখসহ আরও অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে গত সোমবার সন্ধ্যায় থানায় মামলা করেন। মামলার অন্যতম আসামি এরশাদ আলীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে; অন্যান্য আসামিদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান ওসি শাহিনুর রহমান।


আরোও অন্যান্য খবর
Paris