এফএনএস : অনেকদিন ধরেই খেলার বাইরে দেশসেরা গলফার সিদ্দিকুর রহমান। তবে অনুশীলন চলছে তার। চোখ রেখেছিলেন, ভারতের পেশাদার গলফের (পিজিটিআই) তিনটি প্রতিযোগিতায়। যার প্রথমটি জিভ মিলকা সিংয়ের নামে, হবে ৩ থেকে ৬ ডিসেম্বর চণ্ডীগড়ে। দেড় কোটি টাকার প্রাইজমানির প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার জন্য এ মাসের শেষ সপ্তাহে ঢাকা ছাড়ার কথা ছিল সিদ্দিকুরের। কিন্তু করোনাভাইরাসের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে আপাতত ভারত যাচ্ছেন না এশিয়ান ট্যুরের দুটি শিরোপা জেতা এই গলফার। সিদ্দিকুরের ভিসা প্রাপ্তি থেকে শুরু করে সবকিছুই ঠিক ছিল। আর্মি গলফ ক্লাবে নিয়মিত অনুশীলনও করে যাচ্ছিলেন। কিন্তু করোনার প্রভাবে তিনি পিছু হটেছেন।

এ প্রসঙ্গে সিদ্দিকুর বলেছেন, ‘করোনার কারণে সাহস করতে পারিনি। তাই আমি ভারত যাইনি। সবই ঠিক ছিল। ধরুন এখান থেকে নেগেটিভ হয়ে যাব, যদি ওখানে (ভারতে) পজিটিভ হয়ে যাই, তাহলে কী হবে? তখন তো আমি দেশেও আসতে পারবো না।’ এরপরই এই গলফার বললেন, ‘সবকিছু মিলিয়ে মন টানছিল না। তাই যাইনি। নিজে নিজে ট্রেনিং করে যাচ্ছি এখন।’ চণ্ডীগড়ের পর আসামে ছিল আরও একটি প্রতিযোগিতা। সেটাও হচ্ছে না। তবে কলকাতায় আগামী ১৫ ডিসেম্বর থেকে অন্য প্রতিযোগিতা আছে।

সিদ্দিকুর অবশ্য এই প্রতিযোগিতা নিয়ে আশাবাদী, ‘চণ্ডীগড় ও আসামের প্রতিযোগিতায় তো খেলা হচ্ছে না। তবে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তখন হয়তো কলকাতায় যেতে পারি। তাই এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ বাতিল করিনি। এখনও আশায় আছি।’ ভারতের পাশাপাশি নতুন করে আবারও যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার পরিকল্পনার কথা শুনিয়েছেন সিদ্দিকুর, ‘আমেরিকায় যাওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্তটা তাড়াতাড়ি নিয়ে নেবো। আমার আগেই ভিসা হয়েছে, আমার স্ত্রীরও হয়েছে। এখন ওখান থেকে কোচ পিটারের সবুজ সংকেত পেলেই যাব। কেননা তিনিই তো কোচিং করাবেন আমাকে। কোচ যখন সময় দিতে পারবে, তখনই আমেরিকাতে যাব।’